শুক্রবার, ০৪-ডিসেম্বর ২০২০, ১২:১৯ অপরাহ্ন
  • বিনোদন
  • »
  • যৌনতায় ভরা স্ক্রিপ্ট পেয়ে ফেসবুকে ক্ষোভ অভিনেত্রী ফারিয়ার

যৌনতায় ভরা স্ক্রিপ্ট পেয়ে ফেসবুকে ক্ষোভ অভিনেত্রী ফারিয়ার

shershanews24.com

প্রকাশ : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০৪:১৭ অপরাহ্ন

শীর্ষনিউজ ডেস্ক : বর্তমানে ওয়েব সিরিজের যুগ। অনলাইনে এখন অহরহ ওয়েব সিরিজ। তার ঊপর কাট-পিস না থাকায় চলছে অশ্লীল যত স্ক্রিপ্ট ও অভিনয়। এবার নিজে অশ্লীল স্ক্রিপ্ট পাওয়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ ঝেড়েছেন লাক্স তারকা ফারিয়া শাহরিন। প্রকাশ করেছেন ওয়েব সিরিজের চিত্রনাট্যের দুটি দৃশ্য। যেখানে দেখা গেল অশ্লীল সংলাপ ও যৌন দৃশ্যের উপস্থিতি।

বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন তিনি। সেখানে তুলেছেন প্রশ্ন, ‘ওয়েব সিরিজ মানেই কী যৌনতা?’ বিষয়টি তার ফেসবুক থেকে গণমাধ্যমেও ছড়িয়ে যায়।

ফারিয়া শাহরিনের কাছে সম্প্রতি একটি ওয়েব সিরিজের কাজের প্রস্তাব আসে। তাকে চিত্রনাট্যও পাঠানো হয়। সেই চিত্রনাট্যে নায়িকাকে কীভাবে যৌনতায় লিপ্ত করা হবে, কীভাবে বস্ত্র হরণ করা হবে সেটা সুনিপুণভাবে লেখা রয়েছে। আর এতেই ক্ষিপ্ত হয়েছেন এই অভিনেত্রী।

একেবারে ‘কাঁচা ভাষায়’ লেখা চিত্রনাট্যের ছবি তুলে ফারিয়া শাহরিন নিজের ফেসবুক হ্যান্ডেলে পোস্ট করে লিখেছেন, একটা ওয়েব সিরিজের অফার পেয়েছি। সকাল থেকে খুব মনোযোগ দিয়ে চিত্রনাট্য পড়ছিলাম। মনে যদিও একটা নেগেটিভ চিন্তা ছিল আগে থেকেই। ভাবছিলাম ওয়েব সিরিজের নামে এখন যা হচ্ছে অন্তত এটা যেন এমন না হয়। কিন্তু দেখলাম এটা আরো অনেক বেশি নোংরা। স্ক্রিপ্টের ভাষা দেখে তো আমার মাথা ঘুরতেছে। ও মাই গড! ইজ ইট পর্ন? এই অবস্থা কেন আমাদের দেশের?’

তিনি আরও বলেন, ‘ওয়েব সিরিজ মানে কি কাপড় খুলতে হবে? নষ্টামি নোংরামি করতে হবে? এইসব এলাউ ক্যামনে করে? লিগ্যাল অ্যাকশন নেয় না কেন এদের বিরুদ্ধে। আমার সিরিয়াসলি মাথা ঘুরতেছে। মাথায় আইস ব্যাগ দেওয়া লাগবে। হবে না এসব আমাকে দিয়ে হবে না। ড্রাগ, প্রস্টিটিউশন, সেক্সে ভরপুর স্ক্রিপ্ট। আল্লাহ রহম করো। পুরো স্ক্রিপ্টটা দেওয়া সম্ভব না জাস্ট দুইটা স্ক্রিনশট দিলাম।’

তবে কোন প্রযোজক বা পরিচালক তাকে চিত্রনাট্যটি পাঠিয়েছেন, সে বিষয়ে কিছু জানানি ফারিয়া। যেখানে আদালত থেকে ওয়েব সিরিজে অশ্লীলতা ও যৌনতা প্রদর্শনের বিরুদ্ধে ঘোষণা এসেছে সেখানে এমন চিত্রনাট্য দেখে অনেকেই অবাক হয়েছেন, হতাশাও প্রকাশ করছেন।
শীর্ষনিউজ/এসএসআই