রবিবার, ০৮-ডিসেম্বর ২০১৯, ১০:২৮ অপরাহ্ন
  • অন্যান্য
  • »
  • মায়ের পর মেয়ের আত্মহত্যা, শোকে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিলেন বাবা!

মায়ের পর মেয়ের আত্মহত্যা, শোকে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিলেন বাবা!

shershanews24.com

প্রকাশ : ২৯ নভেম্বর, ২০১৯ ১১:১১ পূর্বাহ্ন

শীর্ষনিউজ ডেস্ক: ছয় মাস আগে কুয়োয় ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছিল মা। মায়ের মৃত্যু নিয়ে বাবার সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া হতো চিকিৎসক মেয়ের। 
এরপর গত বুধবার সন্ধ্যায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি। এরপর শোক সইতে না পেরে বাবাও ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মাহুতি দেন।
আত্মঘাতী ওই নারী চিকিৎসকের নাম দেবাদৃতা সাহা (২৫)। তিনি ভারতের পশ্চিমবঙ্গের সাগর দত্ত মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক। 
আর তার বাবা দিলীপ সাহা বিদ্যুৎ ভবনে উচ্চ পদে কর্মরত ছিলেন।
পরিবারের বরাত দিয়ে আনন্দবাজার জানিয়েছে, কেষ্টপুরের বারোয়ারিতলার ফ্ল্যাটে স্ত্রী-মেয়ের সঙ্গে থাকতেন দিলীপ। ছয় মাস আগে কুয়োয় ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেন দেবাদৃতার মা মধুচন্দ্রা। 
মায়ের মৃত্যুর পরে দেবাদৃতা আর সেখানে থাকতে চাননি। তাই বাবা-মেয়ে বেলঘরিয়ার যতীন দাস নগরের বাড়িতে থাকতেন। বুধবার সকালে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান দেবাদৃতা তাদের কেষ্টপুরের ফ্ল্যাটে গিয়ে সিলিং ফ্যানের ঝুলে আত্মহত্যা করেন। 
খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দরজা ভেঙে দেবাদৃতার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। 
এ ঘটনার পর ভেঙে পড়েন দিলীপ। কাঁদতে কাঁদতে তিনি সেখান থেকে বেরিয়ে যান। ঘণ্টাখানেক পরে খবর আসে, ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন তিনি। 
দিলীপের ভাই প্রদীপ জানান, ‘মায়ের মৃত্যু নিয়ে বাবা-মেয়ের মধ্যে দ্বন্দ্ব ছিল। আগের দিন কথা কাটাকাটিও হয়েছিল। দেবাদৃতার মা মানসিক অবসাদের শিকার ছিলেন। মেয়েও তাই। দুজনের পরপর মৃত্যুর পরে ভাইও চলে গেল।’
শীর্ষনিউজ/জে